প্রেমিক প্রেমিকা বিয়ে ছারাই এক ঘরে ১১ বছর কাটিয়ে দিলেন টের পাননি মা-বাবা!

প্রেমের নীরব স্বপ্ন যত মধুর তার অর্ধেক মধুরতাও জীবনে আর কিছুতেই নেই ।” “আনন্দকে ভাগ করলে দুটি জিনিস পাওয়া যায়; একটি হচ্ছে জ্ঞান এবং অপরটি হচ্ছে প্রেম। সম্প্রতি প্রেমিকার কাছে পালিয়ে আসেন সাজিতা নামের এক নারী। আশ্রয় নেন প্রেমিক আইলুর রহমানের ঘরে।এরপর তারা একসাথে বদ্ধ ঘরে থাকতে শুরু করেন। বিষয়টি আইলুরের মা-বাবাও টের পাননি। সে সময় থানায় মেয়ে নিখোঁজ বলে সাজিতার মা-বাবা ডায়েরি করেন। পরে আইলুরকে জিজ্ঞাসাবাদও করেছিল পুলিশ। কিন্তু আইলুর কিছু স্বীকার করেননি। পুলিশের অনুসন্ধানেও কিছু বের হয়নি।

দীর্ঘ সময় পার হওয়ায় মেয়েকে ভুলতেই বসেছিলেন সাজিতার মা-বাবা। ধরেই নিয়েছিলেন যে তাদের মেয়ে মারা গেছেন।

কিন্তু ১১ বছর ধরে প্রেমিকা সাজিতা (২৮) কে সাথে নিয়ে কেরালায় পালাক্কাড় শহরের কাছে একটি গ্রামে নিজের বাড়িতে লুকিয়ে রেখে রীতিমত সংসার করছেন আইলুর রহমান (৩৪)। সবাইকে জানিয়ে বিয়ে করতে গেলে পরিবারের বাঁধার মুখে পড়বেন, তাই কাউকে না জানিয়েই একসাথে সিদ্ধান্ত নেন তারা।

কিন্তু একই বাড়িতে বসবাস করলেও অন্য বাসিন্দারা টের পাননি আইলুর-সাজিতার সংসার জীবনের কথা। কারণ সাজিতাকে নিজের ঘরে লুকিয়ে রেখেছিলেন আইলুর।

তিন মাস আগে আইলুর তার বাড়ি থেকে পালিয়ে যান। বিষয়টি নিয়ে তার মা-বাবা নিখোঁজের ডায়েরি করেন। এরপর তার ভাইয়ের সাথে সম্প্রতি দেখা হলে পুরো বিষয়টি সামনে আসে বলে জানায় ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য হিন্দু।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*